Alexa

ছাত্রীদেরকে যৌন হয়রানি

বশেমুরবিপ্রবির শিক্ষককে অব্যাহতি

বশেমুরবিপ্রবির শিক্ষককে অব্যাহতি

অফিস আদেশে শিক্ষককে প্রধানের পদ থেকে অব্যাহতির পাশাপাশি ৪ বছরের কর্মবিরতি দেয়া হয়েছে, ছবি: বার্তা২৪.কম

দুই ছাত্রীকে যৌন হয়রানির দায়ে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) সিএসই বিভাগের চেয়ারম্যান আক্কাস আলীকে বিভাগীয় প্রধানের পদ থেকে আজীবনের জন্য অব্যাহতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

একই সঙ্গে ওই শিক্ষককে জানুয়ারি-জুন ২০১৯ থেকে জুলাই-ডিসেম্বর ২০২২ পর্যন্ত মোট ৮ সেমিস্টারের জন্য একাডেমিক ও প্রশাসনিক কার্যক্রম থেকে বিরত রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৮ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার মোঃ নুরউদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার জানান, গঠিত তদন্ত কমিটির সুপারিশ অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা বোর্ডের সিদ্ধান্ত মোতাবেক শিক্ষক আক্কাস আলীর বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

তবে ওই সময়ে (৪ বছর) তিনি বেতনসহ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অন্যান্য সুযোগ গ্রহণ করতে পারবেন কি না সেটা তার জানা নেই বলে জানান।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও শৃঙ্খলা বোর্ডের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসির উদ্দিন জানান, তদন্ত প্রতিবেদন গোপনীয় একটি বিষয়। তদন্ত কমিটি ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে আনীত দুই ছাত্রীর অভিযোগ সত্য কি না এ ব্যাপারে কোন মন্তব্য করেননি।

উপাচার্য বলেন, 'বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক পরিস্থিতি ও পরিবেশ বিবেচনা করে এবং তদন্ত কমিটির রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। উল্লেখিত সময়ে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পুরো বেতন ও সুযোগ সুবিধা ভোগ করলেও তাকে একাডেমিক ও প্রশাসনিক কোন কাজ করতে দেওয়া হবে না।'

প্রসঙ্গত, বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই বিভাগের চেয়ারম্যান আক্কাস আলীর বিরুদ্ধে দুই ছাত্রী যৌন নিপীড়নের অভিযোগ তোলেন। অভিযোগের বিষয়টি শিক্ষার্থীদের ফেসবুকে স্থান পায়। এক সময় তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষকের কঠোর শাস্তির দাবিতে ৭ এপ্রিল থেকে শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেন।

আপনার মতামত লিখুন :

ক্যাম্পাস এর আরও খবর