Barta24

রোববার, ২৫ আগস্ট ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

English

এক ফ্যান এক লাইটের বিদ্যুৎ বিল ১২৮ কোটি

এক ফ্যান এক লাইটের বিদ্যুৎ বিল ১২৮ কোটি
বিদ্যুৎ বিল
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তাটোয়েন্টিফোর.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ভারতের উত্তর প্রদেশের হাপুর শহরের কাছে চামরি নামে একটি গ্রামের এক গৃহস্থের বাড়িতে ১২৮ কোটিরও বেশি রুপির বিদ্যুৎ বিল এসেছে। বাড়িটির বাসিন্দা এক দম্পতি, যাদের ঘরে কেবল লাইট আর ফ্যান চলে।

শামীম নামে ওই বাড়ির কর্তা বিল সংশোধনের জন্য বিদ্যুৎ অফিসে বার বার ধর্না দিয়েও এর কোন সুরাহা করতে পারেননি। বিল পরিশোধ না করায় তার বাড়ির বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে।

পুনরায় বিদ্যুৎ সংযোগের দাবি নিয়ে বিদ্যুৎ অফিসে গেলে শামীমকে কর্মকর্তারা বলেছেন, বিল পরিশোধ করলেই কেবল তার বাড়ির বিদ্যুৎ সংযোগ চালু করে দেওয়া হবে।

বাড়িটির ২ কিলোওয়াটের বিদ্যুৎ সংযোগের বিলের কাগজে ছাপা বিলের মোট পরিমাণ ১২৮ কোটি ৪৫ লাখ ৯৫ হাজার ৪৪৪ রুপি। এই উদ্ভট পরিমাণ সংশোধন করতে গিয়ে বিদ্যুৎ অফিসের টেবিলে টেবিলে ঘুরেছেন বলে জানিয়েছেন শামীম।
https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/21/1563676901455.jpg
ভারতীয় সংবাদ সংস্থা এএনআই’কে তিনি বলেন, কেউ আমাদের কথা শুনছে না। এই অর্থ আমরা কিভাবে পরিশোধ করব? অভিযোগ নিয়ে গেলে কর্মকর্তারা বলছেন, পুরো বিল পরিশোধ করতে হবে। তারা আমার বাড়ির লাইন ইতোমধ্যেই কেটে দিয়েছেন।

অভিযোগ করে শামীম আরও বলেন, প্রতি মাসে আমার বিদ্যুৎ বিল ৭শ’ থেকে ৮শ’ রুপির মধ্যেই থাকে। কিন্তু এবার আমাকে পুরো হাপুর শহরের বিদ্যুৎ বিল ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে!

ভুক্তভোগী শামীমের স্ত্রী খাইরুন্নিসা বলেন, আমরা কেবল লাইট আর ফ্যান চালাই। আমরা গরিব মানুষ, আমরা কিভাবে এত বিল দেব?

রামশরণ নামে প্রদেশের বিদ্যুৎ বিভাগের এক প্রকৌশলী সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, এটা বড় কোন ব্যাপার না, সামান্য যান্ত্রিক ত্রুটি। পরে সংশোধন করে দেওয়া হবে।
সূত্র: এনডিটিভি

আপনার মতামত লিখুন :

মোদীকে 'অর্ডার অফ জায়েদ' সম্মাননায় ভূষিত

মোদীকে 'অর্ডার অফ জায়েদ' সম্মাননায় ভূষিত
ছবি: সংগৃহীত

সংযুক্ত আরব আমিরাতের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা 'অর্ডার অব জায়েদ'-এ ভূষিত করা হয়েছে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে।

শনিবার (২৪ আগস্ট) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবু ধাবির এক অনুষ্ঠানে মোদীর গলায় সোনার মেডালটি পরিয়ে দেন যুবরাজ শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, দুই দেশের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক আরও জোরদার করতে মোদীকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়েছে। সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রথম প্রেসিডেন্ট শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের নামে এ সম্মাননার নামকরণ করা হয়েছে। তার জন্মের শতবর্ষ উপলক্ষে মোদীকে এ সম্মাননা দেওয়া হয়। এ বছর এপ্রিলে মোদীকে এ সম্মাননায় ভূষিত করার কথা ঘোষণা করা হয়।

সৌদি আরব সরকার কর্তৃক এ সম্মাননা বিশ্বের খুব কম নেতাকে দেওয়া হয়েছে। এর আগে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, রানী দ্বিতীয় এলিজাবেথ ও চীনের বর্তমান প্রেসিডেন্ট শিং জিংপিয়ের মতো নেতাদেরকে এ সম্মাননায় ভূষিত করা হয়েছে।

কাশ্মীরের বিতর্কিত ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ করার ঘোষণা দেওয়ার পরও সৌদি সরকার তাকে এই সম্মাননা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সম্প্রতি ভারত সরকার ৩৭০ ধারা বাতিলের পরও কাশ্মীরের নিরাপত্তার স্বার্থে এই মুহূর্তে সেখানে প্রবেশাধিকারের নিষেধাজ্ঞা জারি রেখেছে। 

কাশ্মীর থেকে ফেরত পাঠালো রাহুল গান্ধীকে

কাশ্মীর থেকে ফেরত পাঠালো রাহুল গান্ধীকে
সাবেক কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী, ছবি: সংগৃহীত

ভারত সরকারের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও আজ শনিবার (২৪ আগস্ট) কাশ্মীর যান সাবেক কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী ও বিরোধী দলের ১১ নেতা। কিন্তু শ্রীনগর বিমানবন্দর থেকে তাদেরকে দিল্লিতে ফেরত পাঠানো হয়েছে। 

শনিবার (২৪ আগস্ট) ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে এ তথ্য জানানো হয়। 

আরও পড়ুন: নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও কাশ্মীর যাচ্ছেন রাহুল গান্ধী

৩৭০ ধারা বাতিলের পরও কাশ্মীরের নিরাপত্তার স্বার্থে এই মুহূর্তে সেখানে যাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে প্রশাসন। 

এদিকে বিরোধী নেতাদের কাশ্মীর সফরের সিদ্ধান্তের খবরে আপত্তি জানায় জম্মু-কাশ্মীর প্রশাসন। জম্মু-কাশ্মীরের তথ্য ও জনসংযোগ দফতরের বরাতে  এক টুইট বার্তায় বলা হয়েছে, সীমান্তে সন্ত্রাস ও জঙ্গিদের হাত থেকে যখন জম্মু-কাশ্মীরবাসীকে রক্ষা করার চেষ্টা চালাচ্ছে সরকার, সেই পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক নেতাদের এসে বিড়ম্বনা না বাড়ানো উচিত। রাজনৈতিক নেতাদের কাছে আর্জি, দয়া করে সহযোগিতা করুন। শ্রীনগরে আসবেন না। আপনাদের বোঝা উচিত, এই মুহূর্তে প্রধান দায়িত্ব হল শান্তি বজায় রাখা।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র