Barta24

বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

English

দিক পরিবর্তন করল ঘূর্ণিঝড় বায়ু

দিক পরিবর্তন করল ঘূর্ণিঝড় বায়ু
ছবি: সংগৃহীত
অন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

গুজরাট থেকে ক্রমশ অভিমুখ বদলে সমুদ্রের দিকে সরে যাচ্ছে ঘূর্ণিঝড় বায়ু। বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) দুপুরেই গুজরাট উপকূলের পোরবন্দর এবং মাহুবায় বায়ুর আছড়ে পড়ার কথা ছিল। ঘূর্ণিঝড়টি বর্তমানে গুজরাটের জুনাগাধের উপকূলবর্তী বঙ্গোপসাগরের রয়েছে। ফলে তাণ্ডবের হাত থেকে কিছুটা রক্ষা পেল রাজ্যটি।

আবহাওয়া অধিদফতরের বরাত দিয়ে দেশটির গণমাধ্যম জানায়, বায়ু গতিপথ পরিবর্তন করলেও মারাত্মক ঝড়ো হাওয়া বইবে ও সমুদ্রের অবস্থা প্রতিকূল থাকবে। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ কমবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সমুদ্র উপকূলে ঘণ্টায় ১৩৫ থেকে ১৪৫ কিলোমিটার বেগে হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এদিকে, কচ্ছ থেকে শুরু করে দক্ষিণ গুজরাটের বিস্তীর্ণ এলাকা ও সমুদ্র উপকূলে চূড়ান্ত সর্তকতা জারি করা হয়েছে। সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও উপকূল রক্ষী বাহিনীকেও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jun/13/1560418269613.PNG

বুধবার (১২ জুন) দিবাগত রাত থেকে পোরবন্দর, দিউ, ভাবনগর, কেশড, কান্দলায় বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে। ৭০টি ট্রেন বাতিল হয়েছে, ২৮টি ট্রেনের সময়ের বদল ঘটেছে। প্রায় তিন লক্ষ মানুষকে নিরাপদ এলাকায় সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বন্ধ রাখা হয়েছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো।

গুজরাট প্রশাসন সূত্রে জানানো হয়, বিএসএফকেও উদ্ধার কাজে ব্যবহার করা হবে। ইতোমধ্যে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে ঝড়ো বাতাসে মুম্বাইয়ে ৬৩ বছর বয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ৩ মে সকাল ৯টার দিকে ওড়িশার পুরীতে ঘণ্টায় ১৯৫ কিলোমিটার বেগে আঘাত হানে ফণী। এর সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় তুমুল বৃষ্টি। এতে উপড়ে পড়ে গাছপালা ও ঘরবাড়ি। ফণির তাণ্ডবে ওড়িশায় আটজন নিহত হয় এবং আহত হয় অনেকে। ঘূর্ণিঝড়টি অনেকটা শক্তি হারিয়ে কলকাতা হয়ে বাংলাদেশের আঘাত হানে। এরপর দূর্বল হয়ে যায় ফণি।

আপনার মতামত লিখুন :

দাবানলে পুড়ছে আমাজন!

দাবানলে পুড়ছে আমাজন!
ছবি: সংগৃহীত

দাবানলে পুড়ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় 'রেইনফরেস্ট' বনভূমি আমাজন। পৃথিবীর ২০ শতাংশ অক্সিজেন সরবরাহকারী এ বনভূমিকে 'পৃথিবীর ফুসফুস' বলা হয়ে থাকে।

বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রতিমিনিটে আমাজনের ১০ হাজার বর্গমিটার এলাকা পুড়ে যাচ্ছে। এ বনভূমির ৬০ শতাংশই ব্রাজিলে অবস্থিত।

এরইমধ্যে ব্রাজিলের রোন্ডানিয়া, অ্যামাজোনাস, পারা, মাতো গ্রোসো অঞ্চলের কিছু অংশে আগুন ছড়িয়ে পড়েছে।

এবারের অগ্নিকাণ্ড এ যাবৎকালের মধ্যে সবচেয়ে বড় বলে জানায় ব্রাজিলের মহাকাশ গবেষণা কেন্দ্র, ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ফর স্পেস রিসার্চ। বিশ্ব উষ্ণায়নের ফলে এমন আগুন লাগার ঘটনা ঘটছে বলে তারা দাবি করেন।

প্রতিবেদনে আরও জানানো হয়, প্রায় ১৬,০০০ প্রজাতির কয়েক হাজার কোটি গাছ রয়েছে এ বনভূমিতে। শুষ্ক আবহাওয়া, তাপমাত্রা বৃদ্ধি ও বাতাসের ফলে এ আগুন ক্রমশ আরও ছড়িয়ে পড়ছে।

পরিবেশবিদরা জানান, আমাজন জঙ্গল সংলগ্ন আমাজোনাস ও রোনডোনিয়া অঞ্চলের বনের আগুনের ধোঁয়া ২ হাজার ৭০০ কিলোমিটারের বেশি দূরত্ব অতিক্রম করে সাও পাওলোতে এসে পৌঁছেছে। ধোঁয়ায় সাও পাওলো শহরের চারিদিকে ঢেকে গিয়েছে বলেও জানান তারা। 

মায়ের গাড়ি চুরি করে চালাতে গিয়ে ধরা পড়ল ৮ বছরের শিশু

মায়ের গাড়ি চুরি করে চালাতে গিয়ে ধরা পড়ল ৮ বছরের শিশু
ছবি: প্রতীকী

জার্মানিতে ৮ বছরের এক ছেলে মধ্যরাতে মায়ের গাড়ি চুরি করে চালাতে গিয়ে পুলিশ হাতে ধরা পড়ে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার (২১ আগস্ট) মধ্যরাতে অজ্ঞাত এক ছেলে গাড়ি চালানো অবস্থায় জার্মানির ডরমুন্ট শহরের দিকে যাওয়ার পথে পুলিশের নজরে আসে। পরবর্তীতে পুলিশ ছেলেটিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। 

প্রতিবেদনে জানানো হয়, ছেলেটির বাড়ি জার্মানির সসেস্ট শহরে। যেখানে তাকে পাওয়া যায় (ডরমুন্ট) সেখান থেকে তার বাড়ি ৫১ কিলোমিটার দূরে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Aug/22/1566479158422.jpg

 

এ নিয়ে স্থানীয় সসেস্ট পুলিশ কর্তৃপক্ষ ফেসবুকে এক পোস্ট শেয়ার করে। পোস্টে আটককৃত ৮ বছরের ছেলেটির কথা তুলে ধরা হয়। সেখানে সে বলে, 'আমি শুধুমাত্র একটু চালিয়ে দেখতে চাইছিলাম।' তারপর সে কান্নায় ভেঙে পড়ে।

পুলিশ আরও জানায়, মধ্যরাতে ছেলেটি ঘণ্টায় ১৪০ কিলোমিটার বেগে গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছিল। সৌভাগ্যক্রমে কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি।

এদিকে, ছেলেটির মা মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) মধ্যরাতে (১টা ১৫ মিনিটে) থানায় একটি  মিসিং ডায়েরি  করেন।

তিনি বলেন, মধ্যরাতে তার ঘুম ভেঙে গেলে সে তার ছেলেকে বাড়িতে খুঁজে পাচ্ছিল না। একইসঙ্গে তার ব্যক্তিগত গাড়িটিরও খোঁজ পাচ্ছিলেন না।

তিনি পুলিশের কাছে বলেন, 'এর আগেও তার ছেলে ড্রাইভিং করেছে কিন্তু তার বাড়ির সীমানার ভিতরে থেকে।' 

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র