Barta24

মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০১৯, ১১ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

ফ্লায়িং ট্যাক্সি নিয়ে আসছে ‘উবার এয়ার’

ফ্লায়িং ট্যাক্সি নিয়ে আসছে ‘উবার এয়ার’
ফ্লায়িং ট্যাক্সি, ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তা২৪


  • Font increase
  • Font Decrease

আন্তর্জাতিক বাজারে উবার নিয়ে আসছে ফ্লায়িং ট্যাক্সি সার্ভিস ‘উবার এয়ার’।

সম্প্রতি আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের বরাতে জানানো হয়, অস্ট্রেলিয়ার মেলবর্ন শহরে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে উবার এয়ারের বিশেষ এই সার্ভিসটি।

২০২০ সাল থেকে পরীক্ষামূলকভাবে ফ্লাইট শুরু করবে উবার এয়ার। পরবর্তীতে ২০২৩ সালে বাণিজ্যিকভাবে যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছে উবার ফ্লায়িং ট্যাক্সি।   

বিবিসিকে দেওয়া বরাতে জানা যায়, ভবিষ্যৎ বাজারে ট্রাফিক কমাতে সাহায্য করবে উবার ফ্লায়িং ট্যাক্সি। মেলবর্নের কেন্দ্রীয় বানিজ্যিক জেলা থেকে বিমানবন্দরের ১৯ কিলোমিটারের পথ যেতে সময় লাগে ১ ঘন্টা। সেখানে উবার এয়ারে সময় লাগবে মাত্র ১০ মিনিট।

ইতোমধ্যে নাসা ও ইউএস আর্মির সাথে ফ্লায়িং ট্যাক্সিটি নিয়ে কাজ শুরু করেছে উবার। এমব্রার ও পিপস্ট্রাল নামক দুটি উড়োজাহাজ নির্মাতাও আছে এই বোর্ডে।  

গতবছর প্রতিষ্ঠানটি ফ্লায়িং ট্যাক্সি নিয়ে কাজ করার জন্য প্যারিসে একটি গবেষণাগার খুলবে বলে ঘোষণা দেয়।

আপনার মতামত লিখুন :

নেদারল্যান্ডের যোগাযোগ ব্যবস্থায় ধস

নেদারল্যান্ডের যোগাযোগ ব্যবস্থায় ধস
দেশটির মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর কেপিএন, ছবি: সংগৃহীত

নেদারল্যান্ডের টেলিকমিউনিকেশন ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বিপর্যয় ঘটেছে। এরমধ্যে জরুরি প্রয়োজনের নম্বরগুলোতেও কোনো সেবা পাওয়া যাচ্ছে না।

দেশটির মোবাইল নেটওয়ার্ক অপারেটর রয়াল ‘কেপিএন’ থেকে নেটওয়ার্ক বিপর্যয়ের সূত্রপাত হয়ে অন্যান্য মোবাইল নেটওয়ার্ক কোম্পানিগুলোও সমস্যায় পড়েছে।

কেপিএনের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, নেটওয়ার্ক সিস্টেমে কিভাবে এই বিপর্যয়ের সূত্রপাত হয়েছে তা এখনো জানা যায়নি। তবে এটা কোনো সাইবার হামলা নয় তা নিশ্চিত করে কেপিএন।

মোবাইল নেটওয়ার্কের সঙ্গে অন্যান্য টেলিকমিউনিকেশন মাধ্যমগুলোতেও এ সমস্যা দেখা যায়।

দেশটির গণমাধ্যম নিউসুরকে কেপিএনের পরিচালক জোস্ট ফারওয়ার্ক বলেন, তাদের নেটওয়ার্ক সিস্টেমে ‘ম্যালফাংশন’ প্রতিরোধে জন্য ব্যাকআপ ছিল, কিন্তু সেটা সময়মত কাজ করেনি।

যোগাযোগ ব্যবস্থার এই বিপর্যয়ের জন্য নেদারল্যান্ডের জনগণকে জরুরি প্রয়োজনে (হাসপাতাল, ফায়ার সার্ভিস, পুলিশ স্টেশন) সরাসরি যাওয়ার জন্য আহ্বান করা হয়।

সূত্র: বিবিসি

গোটা দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী একজন

গোটা দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী একজন
গোটা দেশে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী একজন, ছবি: প্রতীকী

আবদেল আদহিম হাসান রোববার (২৩ জুন) সুদানের মোবাইল অপারেটর ‘জেইন সুদানের’ বিরুদ্ধে আইনি প্রক্রিয়ায় সফল হন। ফলে দেশটিতে শুধুমাত্র তিনিই একজন ব্যক্তি যিনি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারছেন।

তিনি জানান, এই মামলার রায় শুধু তার জন্য ফলপ্রসূ হয়েছে। কেননা এখন শুধু মাত্র তিনি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারছেন। পেশায় একজন আইনজীবি হওয়ায় তিনি নিজ উদ্যোগেই মামলাটি দায়ের করেছেন। তবে আগামী মঙ্গলবার তিনি দেশের সব জনগণের ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করতে আদালতে যাবেন।

এর আগে নিরাপত্তা ইস্যুতে সুদানে বিক্ষুব্ধ জনতাকে প্রতিরোধ করতে সামরিক বাহিনী ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেয়।

গত এপ্রিল মাসে দীর্ঘ সময় ধরে সুদানের ক্ষমতায় থাকা নেতা ওমর আল-বাশিরের বিরুদ্ধে অভ্যুত্থানের পর সামরিক শাসন ক্ষমতা দখল করে। কিন্তু দেশটির মানুষ চায় একটি গণতান্ত্রিক সরকার ব্যবস্থা।

তিনি আশা প্রকাশ করে বিবিসে জানান, আরও দুইদিন আদালতে শুনানি আছে। আশা করি এ সপ্তাহের মধ্যে আরও এক মিলিয়ন মানুষ ইন্টারনেট সেবা পাবেন।

সুদানের সামরিক বাহিনীর নির্দেশে নিরাপত্তা ইস্যুতে দেশটিতে ইন্টারনেট সংযোগ বন্ধ করে দেওয়া হয়। তিন সপ্তাহ ইন্টারনেট সংযোগ না থাকার ফলে দেশটির অর্থনৈতিক ক্ষতি এবং আফ্রিকার প্রায় ৪০ মিলিয়ন মানুষের বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে ব্যাঘাত ঘটেছে।

সূত্র: বিবিসি

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র