Barta24

বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

গুজরাটের দিকে ঘূর্ণিঝড় বায়ু, স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা

গুজরাটের দিকে ঘূর্ণিঝড় বায়ু, স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা
ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

প্রবল শক্তি নিয়ে ক্রমশ উত্তরের দিকে এগোচ্ছে নতুন ঘূর্ণিঝড় ‘বায়ু’। আগামী বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) গুজরাট উপকূলের পোরবন্দর এবং মাহুবায় আঘাত হানতে পারে ঘূর্ণিঝড়টি। এ কারণে গুজরাটের  স্কুল-কলেজগুলো বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

আবহাওয়া অধিদফতরের বরাত দিয়ে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমগুলোতে বলা হয়েছে, আরব সাগর থেকে সৃষ্টি হওয়া সাইক্লোন বায়ু ১৫০ থেকে ১৬০ কিলোমিটার বেগে ভারতের গোয়া থেকে গুজরাটের দিকে ধেয়ে আসছে। মঙ্গলবার (১১ জুন) থেকে মুম্বাই, বেঙ্গালুরু, হোনাভার ও লক্ষনদ্বীপে বৃষ্টি শুরু হয়েছে।

এছাড়া বৃহস্পতিবার থেকে গুজরাটে দমকা হাওয়াসহ ভারী বৃষ্টি হতে পারে। তাই কেরল ও কর্নাটক উপকূল এবং লক্ষদ্বীপের মৎস্যজীবীদেরও সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

এদিকে, আগাম সর্তকতা হিসেবে রাজ্যের স্কুল ও কলেজ বন্ধ রাখার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। সেনাবাহিনী, নৌবাহিনী ও উপকূল রক্ষী বাহিনীকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।

অপরদিকে ঘূর্ণিঝড় বায়ু আঘাত হানার পরবর্তী মোকাবিলায় গুজরাট উপকূলে সৌরাষ্ট্র ও কচ্ছের পোরবন্দর থেকে মাহুবা পর্যন্ত এলাকায় জাতীয় দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বাহিনীদের (এনডিআরএফ) নামানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।

এর আগে গত ৩ মে সকাল ৯টার দিকে ওড়িশার পুরীতে ঘণ্টায় ১৯৫ কিলোমিটার বেগে আঘাত হানে ফণী। এর সঙ্গে সঙ্গে শুরু হয় তুমুল বৃষ্টি। এতে উপড়ে পড়ে গাছপালা ও ঘরবাড়ি। ফণির তাণ্ডবে ওড়িশায় আটজন নিহত হয় এবং আহত হয় অনেকে। ঘূর্ণিঝড়টি অনেকটা শক্তি হারিয়ে কলকাতা হয়ে বাংলাদেশের আঘাত হানে। এরপর দূর্বল হয়ে যায় ফণি।  

 

আপনার মতামত লিখুন :

কানাডা থেকে মাংস আমদানিতে চীনের নিষেধাজ্ঞা

কানাডা থেকে মাংস আমদানিতে চীনের নিষেধাজ্ঞা
কানাডা থেকে মাংস আমদানিতে চীনের নিষেধাজ্ঞা জারি, ছবি: সংগৃহীত

জাল সনদের অভিযোগ এনে কানাডা থেকে সকল প্রকার মাংস আমদানিতে চীন সরকার নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

বুধবার (২৬ জুন) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে এই তথ্য জানা যায়।

 চীনের মাংসের বাজার।
 চীনের মাংসের বাজার, ছবি: সংগৃহীত

 

সূত্র জানায়, কানাডা থেকে আমদানি করা মাংস পরীক্ষায় ক্ষতিকর রেক্টোপামাইন উপাদান পাওয়া গেছে। 

কানাডায় নিযুক্ত চীনা দূতাবাস তাদের ওয়েব সাইটে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, পশুর স্বাস্থ্য সনদ জালের অভিযোগে সকল প্রকার মাংসের অর্ডার বাতিল করা হয়েছে। দেশের সাধারণ ক্রেতাদের নিরাপত্তার কথা ভেবে এই  সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

 সোয়াইন ফ্লূর প্রভাবে চীনের মাংসের বাজারে মাংসের দামের উর্ধগতি
  চীনের বাজারে মাংসের দাম বৃদ্ধি,  ছবি: সংগৃহীত

 

ইতোমধ্যে কানাডা সরকারকে রফতানি সনদ বাতিলের অনুরোধ করেছে বেইজিং।

হংকং সেন্টার ফর ফুড সেফটি অনুসারে, মানবদেহে রেক্টোপামাইন ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। পশুর মোটাতাজা করণে এই উপাদান ব্যবহার করা হয়।

 চায়না বন্ধ কানাডার মাংস আমদানী
চায়নাতে আমদানিকৃত মাংস, ছবি: সংগৃহীত

 

ইউরোপীয় ইউনিয়নে রেক্টোপামাইনের ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ হলেও যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় অবাধে ব্যবহার হয়।

এদিকে, সোয়াইন ফ্লু’র প্রভাবে চীনে লাখ লাখ পশু মারা গেলে, দেশটিতে মাংসের ঘাটতি দেখা দেয়। পাশাপাশি বাজারে মাংসের দামও বেড়ে যায়। এরই পরিপ্রেক্ষিতে চীন সরকার মাংস আমদানি করার সিদ্ধান্ত নেয়।

বিশ্লেষকরা বলছেন, কানাডা থেকে মাংস আমদানি বন্ধের এই সিদ্ধান্ত দেশটির মাংসের চাহিদা পূরণে প্রভাব ফেলতে পারে।  

ডেনমার্কের কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হলেন ফেডেরিক্সেন

ডেনমার্কের কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হলেন ফেডেরিক্সেন
ডেনমার্কের ইতিহাসে সবচেয়ে কনিষ্ঠতম নারী প্রধানমন্ত্রী, ছবি: সংগৃহীত

ডেনমার্কের ইতিহাসে সবচেয়ে কনিষ্ঠতম নারী প্রধানমন্ত্রী হলেন মেট ফেডেরিক্সেন। ড্যানিস আইনজীবী মেট ফেডেরিক্সেন ডেনমার্কের অন্যান্য প্রধান চারটি দল নিয়ে জোট সরকার গঠনের ঘোষণা দেন।

বুধবার (২৬ জুন) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক দলের প্রধান মেট ফেডেরিক্সেন বামপন্থী দলের হয়ে ডেনমার্কের নেতৃত্ব দিবেন।

৪১ বছর বয়সী ফেডেরিক্সেন বলেন, এটা খুবই আনন্দের বিষয় যে তিন সপ্তাহ আলোচনার পর, আমরা একটা নতুন সরকার গঠন করতে যাচ্ছি।

এই সরকার সোশ্যালিস্ট পিপুল পার্টি ও সোশ্যাল লিবারেল পার্টিসহ বাকি চারটি কেন্দ্রীয় বামদলকেও সমর্থন করবে। 

 ডেনমার্ক প্রধানমন্ত্রী
সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক দলের হয়ে নেতৃত্ব দিবেন মেট ফেডেরিক্সেন, ছবি: সংগৃহীত 

 

সরকারের দলীয় চুক্তির বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়ে তিনি বলেন, আগামী শতাব্দীর মধ্যে ডেনমার্কের কার্বন নির্গমন ৭০ শতাংশে নামিয়ে আনা হবে। এই ৪ জোট দলকে নিয়ে আমরা আমাদের লক্ষ্য পৌঁছে যাব।

এদিকে, ৫ জুন অনুষ্ঠিত নির্বাচনে এককভাবে সরকার গঠনের মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা কোনও দলেরই ছিল না। পরবর্তীতে জোটবদ্ধভাবে সরকার গঠনের জন্য আলোচনা চলছিল। আলোচনা শেষে ডেনমার্কের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ফেডেরিক্সেনের দলকে নির্বাচিত করা হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র