Alexa

পুলিশের পাহারায় যে বাদামের চাষ হয়

পুলিশের পাহারায় যে বাদামের চাষ হয়

ইতালির সিসিলি দ্বীপের পেস্তা বাদাম/ ছবি: সংগৃহীত

ইতালির দ্বীপ সিসিলিতে চাষাবাদ হয় বিশ্বের সবচেয়ে দামি সবুজ পেস্তা বাদাম। সিসিলির ব্রন্তে এই বাদাম চাষের জন্য বিখ্যাত। প্রতি দুই বছরে একবার এই বাদামের চাষ হয়।

কিন্তু অবাক হওয়ার বিষয় হলো দ্বীপটিতে পুলিশ পাহাড়ায় এই পেস্তা বাদামের চাষ করা হয়। দ্বীপটির সক্রিয় আগ্নেয়গিরি এটনার ঢালে চাষ হয় এই বিরল প্রজাতির বাদামের।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ব্রন্তের পুলিশ কর্মকর্তা নিকোলাস মোরান্ডি বলছেন যে, তিনি ও তার সহকর্মীরা আগামী সেপ্টেম্বরের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন। কারণ এ সময়টায় পেস্তা বাদাম চাষের মুখ্য সময়।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/19/1558236613589.jpg

নিকোলাস বিবিসিকে জানান, সকাল থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত পুলিশ পাহারা দেয়। প্রয়োজনে তারা পুলিশের হেলিকপ্টারও পাহারার কাজে ব্যবহার করেন।

ব্রন্তে শহরের এটনা পর্বতের ঢালে প্রায় তিন হাজার হেক্টর জায়গা জুড়ে এই পেস্তা বাদামের চাষ হয়। যদিও ব্রন্তেতে জন্মানো পেস্তা বাদাম সারা বিশ্বে জন্মানো পেস্তা বাদামের মাত্র এক শতাংশ, তারপরও এটি সবচেয়ে দামি।

এটাকে অনেকে বলে সিসিলির সবুজ স্বর্ণ। এক কেজি পেস্তা বাদামের দাম ১৭ দশমিক চার মার্কিন ডলার, যা বাংলাদেশি টাকায় এক হাজার ৪০০ টাকা। সিসিলির এই পেস্তা বাদামের দাম যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানে উৎপাদিত পেস্তা বাদামের দামের চেয়ে প্রায় দ্বিগুণ।

সিসিলির স্থানীয় ব্যবসায়ী নেতা এনরিক কিম্বালি জানান, ব্রন্তের নির্দিষ্ট এলাকায় ২৩০ জন স্বীকৃত কৃষক রয়েছেন, যারা পেস্তা বাদামের চাষ করেন। তাদের চাষকৃত এই বাদামের স্বাদ অনেক এবং সেগুলোর উজ্জ্বল সবুজ রং অনেক দিন থাকে।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/19/1558236637784.jpg

এই বাদামের লোভনীয় আকৃতি ও স্বাদের কারণে গাছ থেকেই তা চুরি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে বেশি এবং এটা প্রায়ই ঘটে বলেও জানায় পুলিশ। চোরের চক্র রাতের আঁধারে গাড়ি নিয়ে এসে বাদাম চুরি করে নিয়ে যায়।

জানা যায়, ২০০৯ সাল থেকে ব্রন্তেতে পেস্তা বাদামের চুরির ঘটনা বাড়তে থাকে। ঐ বছরই শহরটির মেয়র বাদাম চাষে পুলিশের নিরাপত্তা চায়। তারপর ২০১১ সাল থেকে ইতালির কেন্দ্রীয় পুলিশ বাহিনী এলাকাটিতে হেলিকপ্টার দিয়ে পাহারা দেওয়া শুরু হয়।

আপনার মতামত লিখুন :