Barta24

বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

English Version

কুকুরের ‘অবৈধ’ নামকরণে পুলিশ হেফাজতে চীনা নাগরিক

কুকুরের ‘অবৈধ’ নামকরণে পুলিশ হেফাজতে চীনা নাগরিক
কুকুরের নাম রেখে পুলিশ হেফাজতে চীনের আনহুই রাজ্যের এক নাগরিক/ ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

চীনের পূর্বাঞ্চলে পালিত কুকুরের ‘অবৈধ’ নামকরণের অভিযোগে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে সেদেশের পুলিশ।

বেইজিং নিউজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, চীনের পূর্বাঞ্চলের আনহুই রাজ্যের এক ব্যক্তিকে সোমবার (১৩ মে) পুলিশ তলব করে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি চীনের প্রচলিত মোবাইল মেসেঞ্জার ‘উইচ্যাট’-এ একটি পোস্ট দেন যে, তার দুটি কুকুর আছে, একটির নাম শেংগুয়ান আরেকটির নাম শিয়েগুয়ান।

কুকুর দুটির এই নামকরণই কাল হয় তার জন্য। উইচ্যাটে নাম দুটি সমালোচিত হয়। কারণ চীনে শেংগুয়ান মানে হলো সরকার এবং শিয়েগুয়ান মানে হলো সরকারি কর্মচারী।

প্রতিবেদনে বলা হয়, অভিযুক্ত ব্যক্তি মজা করেই কুকুর দুটির এই নামকরণ করেছিলেন। কিন্তু পুলিশ এই মজার বিষয়টির উল্টোটা বিবেচনা করেছেন। বিশেষ করে কুকুরের নাম ‘সরকারি কর্মচারী’ করাকে অপরাধ হিসেবে নিয়েছে পুলিশ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/May/14/1557852162737.jpg

জিংজুয়া পুলিশ বলছে যে, এই ঘটনার পরপরই তারা একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে। তারা এটাকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর লোকদের বিরুদ্ধে অপমানজনক তথ্য হিসেবে দেখছে।

পুলিশের তথ্যমতে, চীনের রাষ্ট্রীয় জন-নিরাপত্তা আইন অনুযায়ী আটক ব্যক্তিকে অবশ্যই জিয়াংজিয়াং শহরের প্রশাসনিক আটক কেন্দ্রে ১০ বছর কাটাতে হবে।

বেইজিং নিউজকে এক পুলিশ অফিসার বলেন, ‘উইচ্যাটে ঐ ব্যক্তির বক্তব্য অতিমাত্রায় উসকানিমূলক ছিল। এটা জাতীয়ভাবে খুবই ক্ষতিকর এবং মানুষের অনুভূতিতে আঘাত হানে।’

এদিকে এই ঘটনায় অভিযুক্ত ঐ ব্যক্তি দু:খ প্রকাশ করেছেন বলে জানিয়েছে বেইজিং নিউজ। সংবাদ মাধ্যমটিকে ঐ ব্যক্তি বলেন, ‘আমি এই সম্পর্কে আইন জানি না। আমি জানতাম না বিষয়টি অবৈধ।’

আপনার মতামত লিখুন :

কানাডা থেকে মাংস আমদানিতে চীনের নিষেধাজ্ঞা

কানাডা থেকে মাংস আমদানিতে চীনের নিষেধাজ্ঞা
কানাডা থেকে মাংস আমদানিতে চীনের নিষেধাজ্ঞা জারি, ছবি: সংগৃহীত

জাল সনদের অভিযোগ এনে কানাডা থেকে সকল প্রকার মাংস আমদানিতে চীনের নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

বুধবার (২৬ জুন) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে এই তথ্য জানা যায়।

 চীনের মাংসের বাজার।
 চীনের মাংসের বাজার, ছবি: সংগৃহীত

 

সূত্র জানায়, কানাডা থেকে আমদানি করা মাংস পরীক্ষায় ক্ষতিকর রেক্টোপামাইন উপাদান পাওয়া গেছে। 

কানাডায় নিযুক্ত চীনা দূতাবাস তাদের ওয়েব সাইটে প্রকাশিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, পশুর স্বাস্থ্য সনদ জালের অভিযোগে সকল প্রকার মাংসের অর্ডার বাতিল করা হয়েছে। দেশের সাধারণ ক্রেতাদের নিরাপত্তার কথা ভেবে এই  সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। 

 সোয়াইন ফ্লূর প্রভাবে চীনের মাংসের বাজারে মাংসের দামের উর্ধগতি
  চীনের বাজারে মাংসের দাম বৃদ্ধি,  ছবি: সংগৃহীত

 

এদিকে, কানাডা সরকারকে রপ্তানি সনদ বাতিলের অনুরোধ করেছে বেইজিং।

হংকং সেন্টার ফর ফুড সেফটি অনুসারে, মানবদেহে রেক্টোপামাইন ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। পশুর মোটাতাজা করণে এই উপাদান ব্যবহার করা হয়।

 চায়না বন্ধ কানাডার মাংস আমদানী
চায়নাতে আমদানিকৃত মাংস, ছবি: সংগৃহীত

 

ইউরোপীয় ইউনিয়নে রেক্টোপামাইনের ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ হলেও যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় অবাধে ব্যবহার হয়। সোয়াইন ফ্লু’র প্রভাবে চীনে লাখ লাখ পশু মারা গেলে, বাজারে মাংসের দাম বেড়ে যায়। একই সঙ্গে কানাডা থেকে মাংস আমদানি বন্ধের এই সিদ্ধান্ত দেশটির মাংসের চাহিদা পূরণে প্রভাব ফেলতে পারে।  

ডেনমার্কের কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হলেন ফেডেরিক্সেন

ডেনমার্কের কনিষ্ঠতম প্রধানমন্ত্রী হলেন ফেডেরিক্সেন
ডেনমার্কের ইতিহাসে সবচেয়ে কনিষ্ঠতম নারী প্রধানমন্ত্রী, ছবি: সংগৃহীত

ডেনমার্কের ইতিহাসে সবচেয়ে কনিষ্ঠতম নারী প্রধানমন্ত্রী হলেন মেট ফেডেরিক্সেন। ড্যানিস আইনজীবী মেট ফেডেরিক্সেন ডেনমার্কের অন্যান্য প্রধান চারটি দল নিয়ে জোট সরকার গঠনের ঘোষণা দেন।

বুধবার (২৬ জুন) আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক দলের প্রধান মেট ফেডেরিক্সেন বামপন্থী দলের হয়ে ডেনমার্কের নেতৃত্ব দিবেন।

৪১ বছর বয়সী ফেডেরিক্সেন বলেন, এটা খুবই আনন্দের বিষয় যে তিন সপ্তাহ আলোচনার পর, আমরা একটা নতুন সরকার গঠন করতে যাচ্ছি।

এই সরকার সোশ্যালিস্ট পিপুল পার্টি ও সোশ্যাল লিবারেল পার্টিসহ বাকি চারটি কেন্দ্রীয় বামদলকেও সমর্থন করবে। 

 ডেনমার্ক প্রধানমন্ত্রী
সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক দলের হয়ে নেতৃত্ব দিবেন মেট ফেডেরিক্সেন, ছবি: সংগৃহীত 

 

সরকারের দলীয় চুক্তির বিষয়ে ইঙ্গিত দিয়ে তিনি বলেন, আগামী শতাব্দীর মধ্যে ডেনমার্কের কার্বন নির্গমন ৭০ শতাংশে নামিয়ে আনা হবে। এই ৪ জোট দলকে নিয়ে আমরা আমাদের লক্ষ্য পৌঁছে যাব।

এদিকে, ৫ জুন অনুষ্ঠিত নির্বাচনে এককভাবে সরকার গঠনের মতো সংখ্যাগরিষ্ঠতা কোনও দলেরই ছিল না। পরবর্তীতে জোটবদ্ধভাবে সরকার গঠনের জন্য আলোচনা চলছিল। আলোচনা শেষে ডেনমার্কের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ফেডেরিক্সেনের দলকে নির্বাচিত করা হয়।

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র