Alexa

অ্যাসাঞ্জের ৫০ সপ্তাহের কারাদণ্ডাদেশ

অ্যাসাঞ্জের ৫০ সপ্তাহের কারাদণ্ডাদেশ

উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ, ছবি: সংগৃহীত

উইকিলিকসের প্রতিষ্ঠাতা জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জকে ৫০ সপ্তাহের (প্রায় এক বছর) কারাদণ্ড দিয়েছে ব্রিটেনের আদালত।

সাত বছর আগে সুইডেনের সাথে বন্দী বিনিময়ের বিষয়ে আদালতের আদেশ অমান্য করে লন্ডনস্থ ইকুয়েডর অ্যাম্বাসিতে প্রবেশ করায় তাকে এই সাজা দেয়া হয়েছে বলে এএফপির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বুধবার (১ মে) লন্ডনের এক আদালত জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জের এ কারাদণ্ডাদেশ দেন। এর আগে, গত ১১ এপ্রিল তাকে ইকুয়েডর অ্যাম্বাসি থেকে গ্রেফতার করে হয়। ইকুয়েডরের এই অ্যাম্বাসিতে তিনি প্রায় ৭ বছর ‘বন্দী’ ছিলেন।

সুইডেনে করা এক যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ মামলায় অ্যাসাঞ্জ ২০১২ সালে লন্ডনের একটি আদালতের মুখোমুখি হয়। তবে তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ তিনি অস্বীকার করেন। সে সময় লন্ডনের আদালত অ্যাসাঞ্জকে সুইডেনে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। কিন্তু অ্যাসাঞ্জ সেটা উপেক্ষা করে ইকুয়েডরের অ্যাম্বাসিতে ঢুকে পড়েন। সেখানে তিনি প্রায় সাত বছর অবস্থান করেন।

মাঝের সময়টাতে অ্যাসাঞ্জ অস্ট্রেলিয়া ও সুইডেনে যেতে অপারগতা দেখায়। কিন্তু ইকুয়েডর যেতে চাইলেও সেখানে শেষ পর্যন্ত যেতে পারেননি তিনি।

তবে এর পেছনের মূলত চাবিকাঠি যুক্তরাষ্ট্রই নেড়েছে বলে অ্যাসাঞ্জ বরাবর অভিযোগ করে আসছে। এছাড়া সুইডেন গেলেই অ্যাসাঞ্জকে মেরে ফেলা হতে পারে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :