Barta24

শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯, ৪ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

গুজরাটে প্রচারণায় শুধু মোদি আর রাহুলের মুখ

গুজরাটে প্রচারণায় শুধু মোদি আর রাহুলের মুখ
গুজরাটের সড়কের পাশে মোদি ও রাহুলের ছবি সম্বলিত ব্যানার/ ছবি: বার্তা২৪.কম
খুররম জামান
স্পেশাল করেসপন্ডেন্ড
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

গুজরাটের আহমেদাবাদ থেকে: গুজরাটে লোকসভা নির্বাচনের প্রচারণায় মাত্র দু’টি মুখ দেখা যাচ্ছে। এ নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদি বিজেপির এবং রাহুল গান্ধী কংগ্রেসের পোস্টারবয়-এ পরিণত হয়েছেন।

গুজরাটের বিভিন্ন অঞ্চল ঘুরে গিয়ে দেখা যায়, কোথাও পোস্টার বা দেয়াল লিখনের বাড়াবাড়ি নেই। মোদি ও রাহুল ছাড়া এ নির্বাচনে কারো ছবি সামনে আনা হয়নি। রাস্তার মোড়ে মোড়ে মোদি বা রাহুলের ছবি দিয়ে বড় বড় ব্যানার করা হয়েছে।

গুজরাটে ২০১৪ সালে লোকসভার সবগুলো আসন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) জিতেছিল। এবার রাজ্যটিতে যেভাবেই হোক, জয় বহাল রাখতে চায় বিজেপি। তাই এবার বিজেপির নির্বাচনী ইশতেহারের মলাটের ছবিতেও মোদির মুখ নেওয়া হয়েছে।

গান্ধীনগরে গিয়ে দেখা গেলো, এলকে আদভানিকে বসিয়ে বিজেপি প্রধান অমিত শাহ নির্বাচনে দাঁড়িয়েছেন। কিন্তু এখনে মূল সড়কগুলোতে তার ছবি সম্বলিত একটি ব্যানারও নেই। আছেন শুধু মোদি।

শুধু ব্যানারে নয় ইলেকট্রনিক বিলবোর্ডেও শোভা পাচ্ছে মোদির মুখ। গুজরাটে ২৩ এপ্রিল একদিনই ভোট হবে।

অন্যদিকে, ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস তথা বিরোধী দলের হারানোর কিছু নেই। তারা ২০১৪ সালে কিছুই পায়নি। কিন্তু ২০১৭ সালের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস ভালো ফল করেছিল। এ ভালোর সব কৃতিত্ব গেছে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর ওপর। তারপর গুজরাটে কংগ্রেসে অনেক ভাঙ্গন হয়েছে। তবুও এবার কংগ্রেসের প্রধান মুখ রাহুল গান্ধী।

এখানে কংগ্রেসের জন্য রাহুল ছাড়া আর কেউ প্রচারে জাতীয় মুখ হতে পারেননি। যদিও অমিত শাহ জাতীয় ও রাজ্য রাজনীতিতে অগ্রগামী। তারপরও গুজরাটে তাকে প্রচারে সামনে আনা হচ্ছে না। এখানে মোদি আর মোদি।

আপনার মতামত লিখুন :

ইরানি ড্রোন ধ্বংস করল যুক্তরাষ্ট্র

ইরানি ড্রোন ধ্বংস করল যুক্তরাষ্ট্র
ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রে নৌবাহিনী হরমুজ প্রণালীতে ইরানের একটি ড্রোন ধ্বংস করেছে বলে দাবি করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউসে দেওয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘বৃহস্পতিবার (১৮ জুলাই) ওই ড্রোনটি মার্কিন জাহাজের এক হাজার গজের মধ্যে চলে আসার পর যুদ্ধ জাহাজ ইউএসএস বক্সার প্রতিরক্ষামূলক পদক্ষেপ নেয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘ড্রোনটি বেশ কয়েক বার হুঁশিয়ারি এবং থামার নির্দেশ উপেক্ষা করে জাহাজ এবং ক্রুদের নিরাপত্তার প্রতি হুমতি তৈরি করায় এমন পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। ড্রোনটি সাথে সাথেই ধ্বংস করা হয়েছে।’

আরও পড়ুন: ইরান-ইয়েমেন জলসীমায় সেনা মোতায়েন

তবে ইরান দাবি করেছে, ড্রোন ধ্বংস হওয়ার কোনো তথ্য তাদের কাছে নেই। গত জুনে ওই একই এলাকায় ইরান একটি মার্কিন সামরিক ড্রোন ধ্বংস করেছিল।

এর আগে তেহরান জানিয়েছিল, উপসাগরীয় অঞ্চলে জ্বালানি চোরাচালানের অভিযোগে রোববার (১৪ জুলাই) বিদেশি একটি ট্যাঙ্কার এবং এর ১২ জন ক্রুকে আটক করা হয়েছে।

গত মে মাস থেকে বিশ্বের গুরুত্বপূর্ণ জাহাজ চলাচল এলাকায় ইরানের বিরুদ্ধে ট্যাঙ্কারে হামলার অভিযোগ করে আসছে যুক্তরাষ্ট্র। কিন্তু এসব অভিযোগ নাকোচ করেছে ইরান।

উবারের এক রাইডেই ভাড়া ৮ লাখ টাকা!

উবারের এক রাইডেই ভাড়া ৮ লাখ টাকা!
উবারে ভাড়া বেড়ে গেল ১০০ গুণ, ছবি: সংগৃহীত

উবারে চড়বেন যুক্তরাষ্ট্রের এক নারী যাত্রী। অ্যাপে ভাড়া দেখালো মাত্র ৯৬.৭২ ডলার (৮১২৪ টাকা)। কিন্তু রাইড শেষে ভাড়া দেখে রীতিমতো 'থ' ওই যাত্রী। ভাড়া ১০০ গুণ বেড়ে দাঁড়ায় ৯ হাজার ৬৭২ ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় আট লাখ টাকার বেশি।

ওই নারীর স্বামী এক টুইট বার্তায় উবারের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ লেখেন, 'এই যে উবার, আমার বউয়ের কাছ থেকে ৯৬.৭২ ডলারের ভাড়া ৯ হাজার ৬৭২ ডলার চার্জ করেছে। উবারে চড়ার মতো আর কোনো অবস্থা নেই।'

তবে শেষ পর্যন্ত ওই নারীকে আট লাখ টাকা পরিশোধ না করতে হলেও অনেকেই এটাকে প্রতারণা হিসেবে দেখছেন।

এই বিষয়ে উবার জানায়, এই সামান্য ভুলটি হতাশাজনক। ওই যাত্রী থেকে নির্ধারিত ভাড়াই (যা শুরুতে দেখানো হয়েছে) রাখা হয়েছে।

তবে উবারে ভাড়া বেড়ে যাওয়ার ঘটনা এটাই প্রথম না, এর আগে আরেক যাত্রীর ১৯ ডলারের ভাড়া হয়ে গেল এক হাজার ৯০০ ডলার। এতে উবারের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের যাত্রীরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

এদিকে উবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, 'ভাড়া বেড়ে যাওয়ার বিষয়টি সমাধান হয়েছে।' তবে অন্য যাত্রীদের ক্ষেত্রেও ভাড়া বেড়ে যাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছে রাইড শেয়ারিং প্রতিষ্ঠানটি।

এই বিষয়ে ওয়াশিংটন পোস্টের কর্মকর্তা মার্ক স্মিথ বলেন, 'কেউ যদি উবার পেমেন্টের ক্ষেত্রে ডেবিট কার্ড লিংক করে থাকে, তাহলে মুহূর্তেই কেটে নিতে পারে এই বাড়তি অর্থ। এক্ষেত্রে উবার অ্যাপের সঙ্গে ডেবিড কার্ড লিংক করা উচিত নয়।'

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র