Barta24

বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

পাকিস্তানে ‘কষ্টসাধ্য’ অর্থনৈতিক সংস্কারে ইমরান

পাকিস্তানে ‘কষ্টসাধ্য’ অর্থনৈতিক সংস্কারে ইমরান
ছবি: সংগৃহীত
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

ঋণের বোঝা কমাতে পাকিস্তানে অর্থনৈতিক সংস্কারের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। পাক অর্থনীতির এই সংস্কার ‘বেশ কষ্টসাধ্য’ বলে অভিহিত করেছেন তিনি।

দুবাইয়ে বিশ্বের সরকারপ্রধানদের সম্মেলনে দেওয়া বক্তব্যে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০১৮ সালে তার ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকেই দেশটিতে অর্থনৈতিক বিশাল ঘাটতি দেখতে পাচ্ছেন তিনি।

অর্থনৈতিক সংস্কারকে অস্ত্রোপচারের সঙ্গে তুলনা করে তিনি বলেন, আপনি যখন রোগীর অস্ত্রোপচার করেন তখন তার অনেক কষ্ট হয়, কিন্তু তার অবস্থার উন্নতিও ঘটে।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, সমাজের জন্য সবচেয়ে খারাপ যেটা হতে পারে সেটি হলো, বিরোধী দলগুলোর চাপের মুখে এই সংস্কার বন্ধ রাখা। এটি বন্ধ করতে অনেক মহল মুখিয়ে আছে, তাদের কারণে অর্থনিতক সংস্কার করা যাবে না।

গত রোববার (১০ ফেব্রুয়ারি) অনুষ্ঠিত ওই সম্মেলনের আগে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) প্রধান ক্রিস্টিনে ল্যাগার্ডের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তাঁকেও নিজ দেশে অর্থনৈতিক সংস্কারের কথা জানান তিনি।

সূ্ত্র: আল জাজিরা

আপনার মতামত লিখুন :

মিয়ানমারে কফি শিল্পে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা

মিয়ানমারে কফি শিল্পে যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তা
বিদেশি ক্রেতা ও মিয়ানমারের কফি সংস্থার মাঝে আলোচনা অনুষ্ঠান, ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্র মিয়ানমারের কফি উৎপাদন ও বিশ্ববাজারে বিক্রি করতে ঋণ সহায়তা দিচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্রের আন্তর্জাতিক সাহায্য সংস্থা (ইউএসএআইডি) মিয়ানমারে কফি অ্যাসোসিয়েশনের (এমসিএ) সঙ্গে অংশীদারিত্ব ঘোষণা করেছে।

এর ফলে বেসরকারি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে ১০ লাখ ডলার ঋণ অনুদান দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

মিয়ানমারে ইউএসএআইডি মিশন ডিরেক্টর তেরেসা ম্যাকগি বুধবার (১৭ জুলাই) ইয়াংগুনে এক হোটেলে এ ঘোষণা দেন। সেখানে ৩০টির বেশি বিদেশি ক্রেতা ও মিয়ানমারের ১১টি কফি সংস্থার মাঝে আলোচনা হয়।

ম্যাকগি বলেন, 'ইউএসএআইডি এবং আমেরিকাবাসী হিসেবে কফি সেক্টরে বিশেষ করে মিয়ানমারের ব্যক্তিগত সেক্টরে অবদান রাখার জন্য গর্বিত। যেহেতু এই বেসরকারি উদ্যোগগুলো বাড়ছে, অর্থনৈতিক উন্নয়নে আরও বেশি মানুষ উপকৃত হবে। মিয়ানমারের অর্থনীতি আরও বেশি বলিষ্ঠ হবে।'

কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ড: পাকিস্তানকে রায় পুনর্বিবেচনার নির্দেশ

কুলভূষণের মৃত্যুদণ্ড: পাকিস্তানকে রায় পুনর্বিবেচনার নির্দেশ
ভারতের সাবেক নৌসেনা কুলভূষণ যাদব

গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে ভারতের সাবেক নৌসেনা কুলভূষণ যাদবকে পাকিস্তানের সামরিক আদালতে দেওয়া মৃত্যুদণ্ডের রায় পুনর্বিবেচনা করতে বলেছে আন্তর্জাতিক আদালত।

বুধবার (১৭ জুলাই) হেগের এই আদালতের ১৬ বিচারকের প্যানেল সংখ্যাগরিষ্ঠ বিচারকের মতামতের ভিত্তিতে এ রায় ঘোষণা করে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম।

আন্তর্জাতিক আদালতের রায়ে বলা হয়েছে, রায় পুনর্বিবেচনা না করা পর্যন্ত কুলভূষণ যাদবের মৃত্যুদণ্ড স্থগিত থাকবে। পাশাপাশি তার সঙ্গে দেখা করার সুযোগ দিতে হবে ভারতীয় কূটনীতিকদের।

ভারতের অভিযোগের সঙ্গে একমত হয়ে আন্তর্জাতিক আদালত জানায়, সামরিক আদালতে সাজাপ্রাপ্ত নৌসেনাকে কনস্যুলার অ্যাক্সেস না দিয়ে ভিয়েনা চুক্তির শর্ত লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান।

রায়ে আরও বলা হয়, কুলভূষণ যাদবের সঙ্গে যোগাযোগ করা, আটক আবস্থায় তার সঙ্গে দেখা করা এবং তার জন্য আইনি পদক্ষেপ নেওয়ার অধিকার থেকে ভারতকে বঞ্চিত করেছে পাকিস্তান।

মোট ১৬ জনের রায়ের মধ্যে ৫ জনের রায়ই ভারতের পক্ষে যায়। মাত্র একজন বিচারপতি ছিলেন পাকিস্তানের। এমনকি, চীনের বিচারপতিও ভারতের পক্ষেই রায় দেন।

ভারতীয় নৌবাহিনীর সাবেক কর্মকর্তা কুলভূষণকে ২০১৬ সালের মার্চ মাসে গ্রেপ্তার করে পাকিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনী। বেলুচিস্তানে বিচ্ছিন্নতাবাদী বিদ্রোহে মদদ দেওয়া এবং ভারতের হয়ে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগ আনা হয় তার বিরুদ্ধে।

ভারতের দাবি, কুলভূষণ তার ব্যবসার কাজে ইরানে গিয়েছিলেন। সেখান থেকে তাকে অপহরণ করে পাকিস্তানে নিয়ে গিয়ে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানো হয়।

পাকিস্তানের সামরিক আদালত ২০১৭ সালের এপ্রিলে কুলভূষণকে মৃত্যুদণ্ড দিলে সেই রায়ের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে যায় ভারত।

সূত্র: এনডিটিভি

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র