Barta24

মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী নূর উদ্দিনের মৃত্যু

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্ত যুদ্ধাপরাধী নূর উদ্দিনের মৃত্যু
ছবি: সংগৃহীত
ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট
নেত্রকোনা
বার্তা২৪.কম:


  • Font increase
  • Font Decrease

একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত নূর উদ্দিন ওরফে রদ্দীন (৭০) নামের এক পলাতক আসামি মারা গেছেন। সোমবার (১৫ এপ্রিল) দুপুর দেড়টার দিকে গাজীপুরের জয়দেবপুর এলাকায় তিনি মারা যান।

তার গ্রামের বাড়ি নেত্রকোনার পূর্বধলার জারিয়া ইউনিয়নের পূর্ব মৌদাম গ্রামে। পূর্বধলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয়রা জানায়, মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলায় নূর উদ্দিন ওরফে রদ্দীন পলাতক থাকা অবস্থায় প্যারালাইসিস রোগে আক্রান্ত হন। চলতি বছরের ২৮ মার্চ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধে নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার পলাতক পাঁচ রাজাকারের মৃত্যুদণ্ড দেয় আদালত। বিচারপতি মো. শাহিনুর ইসলামের নেতৃত্বে তিন সদস্যের ট্রাইব্যুনাল এই রায় দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন, উপজেলার খারছাইল গ্রামের আবদুল খালেক তালুকদার (৬৭), উপজেলা সদরের মো. কবির খান (৭০), পূর্বমৌদাম গ্রামের শেখ আবদুল মজিদ ওরফে মজিদ মাওলানা (৬৬), একই গ্রামের আবদুস সালাম বেগ (৬৮) ও মো. নূরউদ্দিন ওরফে রদ্দীন (৭০)।

এই মামলায় প্রথমে সাতজন আসামি ছিলেন। সাত আসামির বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন দিয়েছিল তদন্ত সংস্থা। প্রসিকিউশনের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০১৫ সালের ১২ আগস্ট সব আসামির বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। ওইদিনই আসামি আবদুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়। পরবর্তীতে ২০১৬ সালে ট্রাইব্যুনালে এই মামলার যুক্তিতর্কের সময় গ্রেফতারকৃত আবদুর রহমান (৭০) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।এর আগে আসামি আহমদ আলী (৭৮) অভিযোগ (চার্জ) গঠনের আগেই ২০১৫ সালের ৮ অক্টোবর মারা যান।

নেত্রকোনার পূর্বধলা উপজেলার বাড়হা গ্রামের আবদুল খালেককে হত্যার ঘটনায় খালেকের ছোট ভাই মুক্তিযোদ্ধা আবদুল কাদির ২০১৩ সালে এ মামলাটি করেন।
মুক্তিযুদ্ধের সময় ২১ আগস্ট আবদুল খালেককে গুলি করে হত্যার পর কংস নদীতে লাশ ভাসিয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ আনা হয় ওই মামলায়। পরে মামলাটি ঢাকায় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়।
তদন্ত কর্মকর্তা শাহজাহান কবির ২০১৫ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি থেকে পরের বছরের ১৫ মার্চ পর্যন্ত মামলাটি তদন্ত করেন। এরপর তিনি ২০১৬ সালের ১৬ মার্চ প্রসিকিউশনে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন। প্রসিকিউশন বিভাগ ২০১৬ সালের ২২ মে আসামিদের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক চার্জ দাখিল করে। একই বছর ১২ জুন অভিযোগ আমলে নেয় আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল।

২০১৭ সালের ১৯ এপ্রিল আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যা, গণহত্যা, অপহরণ, নির্যাতন, লুণ্ঠন, অগ্নিসংযোগ, ধর্ষণসহ মানবতাবিরোধী অপরাধের সাতটি অভিযোগ (চার্জ) গঠন করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। এই আসামিদের বিরুদ্ধে একাত্তরে ডা. হেম সুন্দর বাগচী হত্যা, নির্যাতন, লুন্ঠণসহ একাধিক মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগ রয়েছে।মুক্তিযুদ্ধের সময় আসামিরা উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় স্বাধীনতার পক্ষের লোকদের বাড়িতে নির্যাতন, অগ্নিসংযোগ ও লুটপাট চালায় বলে প্রসিকিউশনে অভিযোগ রয়েছে।

পূর্বধলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান বলেন, স্বজনরা তার লাশ বাড়িতে আনার জন্য গাজীপুরের জয়দেবপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে। লাশ বাড়িতে এলে পুলিশ প্রশাসন যাবে ও পরে তার মৃত্যুর বিষয়টি আদালতকে অবহিত করা হবে।

 

আপনার মতামত লিখুন :

রেলের লেভেল ক্রসিংয়ে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণে লিগ্যাল নোটিশ

রেলের লেভেল ক্রসিংয়ে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণে লিগ্যাল নোটিশ
সারা দেশে এখনো ৯৪৬টি লেভেল ক্রসিংয়ে গেটম্যান নেই/ ছবি: সংগৃহীত

নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রেলওয়ের সব লেভেল ক্রসিংয়ে গেটম্যান নিয়োগ ও কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণ করতে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের এক আইনজীবী।

আগামী ৭২ ঘণ্টার মধ্যে এ বিষয়ে পদক্ষেপ না নেওয়া হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা উল্লেখ করা হয়েছে এ নোটিশে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী একলাছ উদ্দিন ভূঁইয়া রেজিস্ট্রি ডাকযোগে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, রেল সচিব, স্থানীয় সরকার সচিব, রেলওয়ের মহাপরিচালক ও পুলিশের মহাপরিদর্শকের প্রতি নোটিশটি পাঠান।

এর আগে সোমবার সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়া উপজেলায় বিয়ের মাইক্রোবাস লেভেল ক্রসিং পার হতে গিয়ে ট্রেনের ধাক্কায় বর-কনেসহ ১০ জন নিহত হন। এই ঘটনায় আহত হন আরও অন্তত ৬ জন।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/16/1563272909536.gif

নোটিশে বলা হয়, দেশের বিভিন্ন রেলক্রসিংয়ে প্রতিদিন দুর্ঘটনায় অনেকের প্রাণহানি ঘটছে। বর্তমানে রেলের এক হাজার ৪১২টি লেভেল ক্রসিং রয়েছে। এর মধ্যে মাত্র ৪৬৬টি লেভেল ক্রসিংয়ে গেটম্যান আছে। বাকি ৯৪৬টিতে গেটম্যান না থাকায় সেগুলো অরক্ষিত।

রেল আইন ১৮৯০ এর ১৩ ও ১২৮ ধারায় রেলের নিরাপত্তায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ রয়েছে। তারপরও লেভেল ক্রসিং অরক্ষিত অবস্থায় রয়েছে। জনসাধারণের চলাচলের জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় সত্ত্বেও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত না করায় প্রতিদিনই দুর্ঘটনা ঘটছে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়েছে।

এতে আরও বলা হয়েছে, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) এক্সিডেন্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউটের তথ্য অনুযায়ী ২০১৮ সালে ২৩৫টি দুর্ঘটনায় ২৪৪ জন মানুষ মারা গেছেন। মারাত্মক আহত হয়েছেন ২২৮ জন।

আদালতে ইউপি চেয়ারম্যানকে বাদী পক্ষের মারধর

আদালতে ইউপি চেয়ারম্যানকে বাদী পক্ষের মারধর
ছবি: সংগৃহীত

হত্যা মামলায় হাইকোর্টে আগাম জামিন পাওয়ায় ক্ষুব্ধ বাদী পক্ষের মারধরের শিকার হয়েছেন মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার বাজিতপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার। এ সময় তার আইনজীবী আবদুল আউয়ালকেও মারধর করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমিতির ভবনের (বার ভবন) ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় হামলাকারী জুয়েল নামের এক যুবককে আটক করেছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি।

সমিতির সম্পাদক মাহবুব উদ্দিন খোকন এ ঘটনায় সিদ্ধান্ত নিতে ইউপি চেয়ারম্যান, আইনজীবী আবদুল আউয়াল ও হামলাকারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন।

সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার বাজিতপুরের আওয়ামী লীগ সমর্থিত ইউপি চেয়ারম্যান। গত ৯ মে
মাদারীপুরের রাজৈরের বাজিতপুরের মজুমদার বাজার এলাকায় সোহেল হাওলাদার (৩২) নামে এক ব্যবসায়ীকে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। সম্পর্কে তারা চাচাতো ভাই। এ ঘটনায় সিরাজুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে রাজৈর থানায় মামলা করার পর থেকে তিনি পলাতক ছিলেন।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) পলাতক সিরাজুল ইসলাম হত্যা মামলায় আগাম জামিন নিতে আসেন হাইকোর্টে। তিনি আগাম জামিনও পান। এরপর বেলা ১টা ১০ মিনিটে সিরাজুল ইসলামের ওপর হামলা চালায় বাদী পক্ষের জুয়েল বাচ্চুসহ অন্যরা। সিরাজুলকে বাঁচাতে তার আইনজীবী এগিয়ে আসলে তাকেও মারধর করা হয়।

সুপ্রিম কোর্ট বারের কক্ষে বসা ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম বলেন, ‘আদালতে জামিন পাওয়ার পর বার ভবনের সভাপতির কক্ষের সামনে আমার ওপর হামলা করেছে বাদী পক্ষ। আমাকে উপর্যুপরি কিল ঘুষি দেওয়া হয়।’

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র