Alexa

চমকসহ স্মার্ট বাজেট

চমকসহ স্মার্ট বাজেট

ছবি: বার্তা২৪.কম

‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ, সময় এখন আমাদের’ শিরোনামে দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট ঘোষণা করবেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। ২০১৯-২০ অর্থবছরে জনসন্তুষ্টির লক্ষ্যে বেশকিছু চমক নিয়ে বৃহস্পতিবার (১৩ জুন) জাতীয় সংসদে পাঁচ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার ১০০ পৃষ্ঠার স্মার্ট বাজেট উপস্থাপন করা হবে। যা জিডিপির পাঁচ দশমিক চার শতাংশ।

ধারাবাহিক ও গতানুগতিক ধারা থেকে বেরিয়ে নতুন আঙ্গিকে প্রথমবারের মত বাজেট ঘোষণা করবেন আ হ ম মুস্তফা কামাল। এবারের বাজেটের আকার বাড়লেও অর্থমন্ত্রীর বাজেটে বক্তৃতা হবে সংক্ষিপ্ত। তবে এ বক্তৃতা একটি বর্ধিত সংস্করণ বাজেট বই আকারে সকলের জন্য উন্মুক্ত করা হবে। যা সর্বস্তরের জনসাধারণের জন্য হবে সহজপাঠ্য। গত অর্থবছরের বাজেট বই হয়েছিল ১৬৬ পৃষ্ঠার। এবার হবে ১৩৫ পৃষ্ঠার, তবে ১০০ পৃষ্ঠা থাকবে বাজেট বক্তৃতা আর অতিরিক্ত ৩৫ পৃষ্ঠা থাকবে বিভিন্ন ধরনের গ্রাফ ও সংখ্যাতত্ত্ব।

সুদূরপ্রসারী লক্ষ্য নিয়ে বিশেষ করে ২০৪১ সালকে টার্গেট করে তৈরি হয়েছে এবারের বাজেট।

রাজস্ব আদায়ে করের হার না বাড়িয়ে বরং করের আওতা বাড়িয়ে রাজস্ব আদায় বাড়ানো হবে। একইসঙ্গে এবারের বাজেটে রাজস্ব আদায়ের প্রক্রিয়া সহজ করতে এনবিআরের জন্য নতুন করে দিক নির্দেশনা থাকবে। ভ্যাট আইন কার্যকর করার বিষয়ে দিকনির্দেশনা থাকবে এবারের বাজেটে। আইন কার্যকর করতে ভ্যাটের একাধিক স্তর থাকবে। কাস্টমস আইন ও আয়কর আইনে প্রয়োজনীয় সংশোধন এনে সহজবোধ্য ও ব্যবসাবান্ধব করা হবে। সকল আমদানি-রফতানি পণ্য শতভাগ স্ক্যানিং করা হবে।

বাজেটে শিক্ষা খাতের সংস্কার, আর্থিক খাতের সংস্কার, শেয়ার বাজারে সুশাসন ও প্রণোদনা প্রদান বিষয়ে সংস্কারমূলক দিক নির্দেশনা থাকবে। আর এসবই হবে সাধারণ মানুষের কাছে আকর্ষণীয় এবং গ্রহণযোগ্য। এবার আকর্ষণীয় ডিজিটাল পদ্ধতিতে মহান জাতীয় সংসদে বাজেট উপস্থাপন করা হবে। বাজেট বক্তৃতার বর্ধিত সংস্করণ, মূল বাজেট বক্তৃতাসহ অন্যান্য সকল ডকুমেন্ট ওয়েবসাইটে প্রকাশসহ জাতীয় সংসদ হতে সরবরাহ করা হবে।

বাজেটকে আরও অংশগ্রহণমূলক করার লক্ষ্যে অর্থ বিভাগের ওয়েবসাইটি https://mof.gov.bd/ এ বাজেটের সব তথ্যাদি ও গুরুত্বপূর্ণ দলিল যেকোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান পাঠও ডাউনলোড করা যাবে। পাশাপাশি দেশ বা বিদেশ থেকেও ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফিডব্যাক ফরম পূরণ করে বাজেট সম্পর্কে মতামত ও সুপারিশ প্রেরণ করা যাবে। প্রাপ্ত সবার মতামত ও সুপারিশ বিবেচনা করা হবে। জাতীয় সংসদ কর্তৃক বাজেট অনুমোদনের সময়ে ওপরে তা কার্যকর করা হবে। ব্যাপকভিত্তিক অংশগ্রহণ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে নিম্নলিখিত সরকারি ওয়েবসাইট লিংক এর ঠিকানায় বাজেট সংক্রান্ত তথ্য পাওয়া যাবে।

 এক নজরে ২০১৯-২০ সালের বাজেট
 বাজেট আকার ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা
 আকার বেড়েছে ৫৮ হাজার ৬১৭ কোটি টাকা বা ১৩ শতাংশ

রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা ৩ লাখ ৭৭ হাজার ৮১০ কোটি টাকা

জিডিপি প্রবৃদ্ধি হচ্ছে ৮ দশমিক ২০ শতাংশ

এনবিআরের লক্ষ্যমাত্রা ৩ লাখ ২৫ হাজার ৬০০ কোটি টাকা

বিদেশি অনুদানসহ রাজস্ব আহরণের লক্ষ্যমাত্রা ৩ লাখ ৮১ হাজার ৯৭৮ কোটি টাকা

পরিচালন ব্যয়- তিন লাখ ১০ হাজার ২৬২ কোটি টাকা

উন্নয়ন ব্যয় ২ লাখ ১১ হাজার ৬৮৩ কোটি টাকা

এডিপি’র আকার ২ লাখ ২ হাজার ৭২১ কোটি টাকা।

 

বাজেটের চমক গুলো হচ্ছে
রেমিটেন্স পাঠানো প্রবাসিদের বিশেষ প্রণোদনা
কৃষকদের জন্য শস্যবিমা, প্রবাসীদের জন্য বিমা
বেকারদের কর্মসংস্থানের জন্য বাজেটে বরাদ্দ রাখা হচ্ছে ১০০ কোটি টাকার বিশেষ ফান্ড

 

আপনার মতামত লিখুন :

অর্থনীতি এর আরও খবর