Barta24

মঙ্গলবার, ২৩ জুলাই ২০১৯, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬

English Version

মীরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে গাছ লাগাবে ব্র্যাক ব্যাংক

মীরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে গাছ লাগাবে ব্র্যাক ব্যাংক
বেজার কাছে গাছের চারা হস্তান্তর করেছে ব্র্যাক ব্যাংক, ছবি: সংগৃহীত
সেন্ট্রাল ডেস্ক
বার্তা২৪.কম


  • Font increase
  • Font Decrease

বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের (বেজা) সঙ্গে অংশীদারিত্বে চট্টগ্রামের মীরসরাই অর্থনৈতিক অঞ্চলে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচি হাতে নিয়েছে ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড।

মীরসরাইয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর প্রাঙ্গণে ব্যাপক বনায়ন প্রকল্পের জন্য ব্র্যাক ব্যাংক আর্থিক সহায়তা দিচ্ছে।

বঙ্গোপসাগরের উপকূলবর্তী ৫০০ একর জমিতে এই বনায়ন প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে উপকূলীয় অঞ্চল যেমন সুরক্ষিত থাকবে, তেমনি সৌন্দর্যও বাড়বে।

৩০,০০০ একর জমিতে নির্মিতব্য মীরসরাই শিল্পনগর হবে বাংলাদেশের সবচেয়ে আধুনিক অর্থনৈতিক অঞ্চল। যেখানে থাকবে বিশ্বমানের ব্যবসা ও শিল্পকেন্দ্রের সুবিধা। আগামী ১৫ বছরে এই বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১৫ লাখ লোকের কর্মসংস্থান হবে। এখান থেকে ১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের রফতানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

সোমবার (১০ জুন) ঢাকায় বেজার প্রধান কার্যালয়ে ব্র্যাক ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিআরও চৌধুরী আখতার আসিফ অংশীদার হিসেবে বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান (সচিব) পবন চৌধুরীর হাতে গাছের চারা হস্তান্তর করেন।

এ উপলক্ষে চৌধুরী আখতার আসিফ বলেন, ‘গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ব্যাংকিং অন ভ্যালুজের সদস্য হিসেবে ব্র্যাক ব্যাংক এক দিকে যেমন মানুষ, পৃথিবী ও উন্নয়ন নিয়ে কাজ করে, অন্য দিকে পরিবেশ সুন্দর ও ভালো রাখার দর্শনে বিশ্বাস করে। বেজার সঙ্গে আমাদের এই অংশীদারিত্ব পৃথিবীকে আরও বাসযোগ্য করার একটি প্রচেষ্টা। আমরা সবুজ অর্থায়ন ও সবুজ উদ্যোগের মাধ্যমে বাংলাদেশের কার্বন নির্গমন হ্রাসে অবদান রাখতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ব্র্যাক ব্যাংকের করপোরেট ব্যাংকিং বিভাগের প্রধান তারেক রিফাত উল্লাহ খান, কমিউনিকেশন্স বিভাগের প্রধান ইকরাম কবির, ট্রেড ডেভেলপমেন্ট ও ক্যাশ ম্যানেজমেন্ট বিভাগের প্রধান জাবেদুল আলম, ট্রেড ডেভেলপমেন্ট ও ক্যাশ ম্যানেজমেন্ট বিভাগের ইউনিট প্রধান ফাহিম ইশতিয়াক হোসেন এবং বেজার নির্বাহী সদস্য (অতিরিক্ত সচিব) অ্যাডমিন ও ফিন্যান্স মোহম্মদ আইয়ুব, কনসালট্যান্ট (সোশ্যাল ও রিসেটেলমেন্ট), সাপোর্ট টু ক্যাপাসিটি বিল্ডিং মো. আব্দুল কাদের খান, প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :

নগদ-এর অ্যাকাউন্ট বিনামূল্যে

নগদ-এর অ্যাকাউন্ট বিনামূল্যে
ডিজিটাল লেনদেন ব্যবস্থা নগদ/ ছবি: সংগৃহীত

ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন ব্যবস্থা নগদ-এর গ্রাহকদের বিনামূল্যে অ্যাকাউন্ট খুলে দেওয়া হচ্ছে। মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) সকালে জাতীয় জন প্রশাসন দিবস উপলক্ষে অ্যাকাউন্ট খোলার আয়োজন করেছে ডাক অধিদফতর।

বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে রাজধানীর ডাক অধিদফতরে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস, ডাক বিভাগের মহাপরিচালক সুধাংশু শেখর ভদ্র প্রমুখ।

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563887775876.gif

অনুষ্ঠানে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘নগদ দেশব্যাপী তাদের কাজ পরিচালনা করছে। এত অল্প সময়ে মানুষের যে পরিমাণ সহায়তা পাচ্ছে ও মানুষের যে পরিমাণ আগ্রহ তৈরি হয়েছে নগদ-এর প্রতি, এটি প্রায় দুর্লভ।’

তিনি বলেন, ‘দেশব্যাপী ডাক বিভাগের মতো এত বড় নেটওয়ার্ক আর কোনো প্রতিষ্ঠানের নেই। তৃণমূল পর্যায়ে পণ্য কিংবা অর্থ পৌঁছে দেওয়ার সক্ষমতা অন্য কারও নেই। আমরা ডাক বিভাগের নেটওয়ার্ককে আরও ডিজিটাল করছি। নগদ-এর মধ্য দিয়ে এই যাত্রা শুরু হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘টেলিকম বিভাগের পক্ষ থেকে নগদ-কে ডাক বিভাগের সেবা হিসেবে সরকারের সকল সেবার কেন্দ্রবিন্দুতে নিতে পারি এবং সাধারণ মানুষের সবচেয়ে প্রয়োজনীয় জিনিস হিসেবে নিতে পারি।’

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jul/23/1563887794969.gif

অনুষ্ঠানে নগদ-এর উদ্যোক্তারা বিনামূল্যে গ্রাহকের অ্যাকাউন্ট খুলে দেন। এ সময় অনেকে উৎসাহ নিয়ে নগদ-এর অ্যাকাউন্ট খুলতে দেখা যায়।

প্রসঙ্গত, সারাদেশে নগদ উদ্যোক্তা পয়েন্টে গিয়ে যে কেউ বিনামূল্যে নগদ অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। নিজে নিজে অ্যাকাউন্ট খোলার পাশাপাশি জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করে খুব সহজে একজন গ্রাহক নগদ উদ্যোক্তার কাছ থেকে বিনামূল্যে অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন।

শ্রমিকদের ৯ কোটি টাকার অর্থ সহায়তা দিল সরকার

শ্রমিকদের ৯ কোটি টাকার অর্থ সহায়তা দিল সরকার
বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ নেতৃবৃন্দের হাতে সহায়তার চেক তুলে দেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আলী আজম

বাংলাদেশ তৈরি পোশাক প্রস্তুত ও রফতানিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) ও বাংলাদেশ নিটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্ট অ্যাসোসিয়েশনের (বিকেএমইএ) শ্রমিকদের নয় কোটি ১৪ লাখ টাকা অর্থ সহায়তা দিয়েছে সরকার।

মঙ্গলবার (২৩ জুলাই) শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে কেন্দ্রীয় তহবিলের এ চেক বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএ’র প্রতিনিধিদের হাতে তুলে দেন মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব কে এম আলী আজম। এসময় অনান্যদের মধ্যে কেন্দ্রীয় তহবিলের মহাপরিচালক ড. আনিসুল আউয়াল উপস্থিত ছিলেন।

শতভাগ রফতানিমুখী শিল্পের শ্রমিক কল্যাণে গঠিত কেন্দ্রীয় তহবিল থেকে শ্রমিকদের মৃত্যু বিমা বাবদ এবং আপৎকালীন সহায়তা হিসেবে এ অর্থ দিয়েছে সরকার।

বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএ’র সদস্যভুক্ত ৪৪৪ জন গ্রার্মেন্টস শ্রমিকের মৃত্যু বিমা বাবদ আট কোটি ৮৮ লাখ টাকা এবং সম্প্রতি বন্ধ হয়ে যাওয়া স্টার গার্মেন্টস লিমিটেডের শ্রমিকদের বেতন ভাতা বাবদ আপৎকালীন সহায়তা হিসেবে ২৬ লাখ টাকা দেওয়া হয়েছে।

এছাড়াও নয় কোটি ১৪ লাখ টাকার মধ্যে বিজিএমইএকে দেওয়া হয়েছে ছয় কোটি ১০ লাখ টাকা এবং বিকেএমইএকে দেওয়া হয়েছে তিন কোটি চার লাখ টাকা। বিজিএমইএ’র পক্ষে পরিচালক নজরুল ইসলাম এবং বিকেএমইএ’র পক্ষে ভাইস প্রেসিডেন্ট ফজলে শামীম এহসান চেক গ্রহণ করেন।

চেক প্রদান অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে শ্রম সচিব ঈদুল আজহার আগে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস নিয়ে যাতে কোনও ধরনের সমস্যার না হয় সেজন্য বিজিএমইএ এবং বিকেএমইএ’র সংশ্লিষ্ট সবার সহযোগিতা চান।

 

এ সম্পর্কিত আরও খবর

Barta24 News

আর্কাইভ

শনি
রোব
সোম
মঙ্গল
বুধ
বৃহ
শুক্র