Alexa

বাণিজ্য মেলা: অনিয়মের অভিযোগ করে কমিশন

বাণিজ্য মেলা: অনিয়মের অভিযোগ করে কমিশন

ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় ক্রেতা ও দর্শনার্থীদের অভিযোগ শোনার জন্য ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের স্টল/ ছবি: বার্তা২৪.কম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, বার্তা২৪.কম

প্রতি বছরের মতো এবারও ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ জানাতে পারবে ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা। অভিযোগ সত্য প্রমাণিত হলে অভিযোগকারী পাবেন কমিশন। এজন্য 'জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর' মেলার শুরু থেকেই কাজ করছে।

কোনো অনিয়ম বা প্রতারণার শিকার হওয়া ক্রেতা বা ভোক্তার অভিযোগের ভিত্তিতে অধিদফতরের কর্মকর্তারা সরেজমিনে যাবেন মেলার ঐ স্টল বা প্যাভিলিয়নে। এরপর অভিযোগ প্রমাণিত হলে আইন অনুযায়ী জরিমানা করবে ভোক্তা অধিদফতর।

সেই জরিমানার টাকার ২৫ শাতাংশ পাবেন অভিযোগকারী। বাকি টাকা যাবে সরকারি কোষাগারে। এক্ষেত্রে যদি ভোক্তা অধিদফতর মেলার কোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে এক লাখ টাকা জরিমানা করে তাহলে অভিযোগকারী পাবেন ২৫ হাজার টাকা। 

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/10/1547130231703.gif

মেলার দ্বিতীয় দিন বৃহস্পতিবার জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের সহকারী পরিচালক রজবি নাহার রজনীর সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ‘মেলায় কোনো পণ্যের দাম বেশি নেওয়া বা অন্য কোনোভাবে ক্রেতারা যদি প্রতারণার শিকার হন তাহলে তাদেরকে প্রমাণ হিসেবে ভাউচার, ভিডিও, অডিও বা ছবি তুলে রাখতে হবে।’

‘এরপর অধিদফতরের স্টলে এসে অভিযোগ করলে তারা আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবেন। তবে এ রকম কোনো প্রমাণ না থাকলে ব্যবস্থা নেওয়া কঠিন হয়ে যায়।’

রজনী বার্তা২৪কে বলেন, ‘খাবারের দোকানগুলোতে মূল্যতালিকা টানাতে হবে। কেউ যদি মেলার নির্ধারিত তালিকা না টানায় তাহলে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করবে। তালিকা অনুযায়ী খাবারের দাম না রেখে যদি বেশি রাখে, তাহলে জরিমানা করবো। ক্রেতাদের অভিযোগের পাশাপাশি আমরা নিজ উদ্দ্যোগেও অভিযান চালাই।‘

https://img.imageboss.me/width/700/quality:100/https://img.barta24.com/uploads/news/2019/Jan/10/1547130262802.gif

তিনি বলেন, ‘কোনো পণ্যের গায়ে যদি তারিখ ও মূল্য লেখা না থাকে, পণ্যের দাম বেশি রাখলে, একটা কিনলে ১০টা ফ্রি এ রকম প্রতারণা এবং বিরিয়ানিসহ বিভিন্ন খাবার দোকানে মেলার নির্ধারিত তালিকা অনুযায়ী দাম না রাখলে জরিমানার আওতায় আসবে ঐ সকল স্টল বা প্যাভিলিয়নের প্রতিষ্ঠান।’

উল্লেখ্য, শুধু মেলা উপলক্ষে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের এই কার্যক্রম নয়। সারা বছরই প্রতিষ্ঠানটি এ কার্যক্রম পরিচালনা করে।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের স্টলটি বরাবরের মতো এবারও ভিআইপি গেট দিয়ে ঢুকে মেলায় প্রবেশের সময় হাতের বাম পাশে স্থাপন করা হয়েছে।

অর্থনীতি এর আরও খবর